ই পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে, নতুন পাসপোর্টের জন্য সকল কাগজপত্রের তালিকা

ই পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে, নতুন পাসপোর্টের জন্য সকল কাগজপত্রের তালিকা

ই পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে, নতুন পাসপোর্টের জন্য সকল কাগজপত্রের তালিকা
ই পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে, নতুন পাসপোর্টের জন্য সকল কাগজপত্রের তালিকা

নতুন কি়ংবা পুরাতন সকল পাসপোর্টের জন্য নির্ধারিত কিছু কাগজপত্র পাসপোর্টের আবেদন করার সময় আবেদন পত্রের সাথে জমা দিতে হয়। আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস সব জায়গায় জেলাতে হওয়ায় পাসপোর্ট করতে কোন কাগজপত্র কম নিয়ে গেলে ভোগান্তির শেষ হয় দিনকে দিন ঘুরে বেড়াতে হয় পাসপোর্ট অফিসের দরজায়। এতে করে আমাদের সময় ও টাকা ২ টির অপচয় হয়।

আপনাদের পাসপোর্ট অফিসের ভোগান্তির কথা মাথায় রেখে আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে আজ আমরা আপনাদের নতুন পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে সেই সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব।

ই পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে?

অনলাইনের মাধ্যমে যে পাসপোর্ট করা হয় তাকে ই পাসপোর্ট বলা হয়। সাধারণত ই পাসপোর্টে একটি চিপের মধ্যে পাসপোর্টদারির সকল তথ্য সংরক্ষিত থাকে। ই পাসপোর্ট করতে মূলত আবেদনের সামারি, আবেদন পত্র, No Objective Certificate বা NOC জাতীয় পরিচয়পত্র সনদ, SSC Certificate, পিতা মাতার ভোটার আইডি কার্ডের কপি, ইউটিলিটি বিল, নাগরিকত্ব সনদপত্র ইত্যাদি কাগজপত্র লেগে থাকে।

তবে ই পাসপোর্টের আবেদনের ধরন, আবেদনকারীর বয়স এগুলো বিবেচনায় ই পাসপোর্টের জন্য অনেক সময় ভিন্ন ভিন্ন কাগজ পত্র লেগে থাকে। নিচে ই পাসপোর্টের জন্য লাগা ডকুমেন্টস সম্পর্কে বিস্তর ব্যাখ্যা লেখা হলো।

১৮ বছর বা তার বেশি বয়স হলে ই পাসপোর্ট করতে কি কি লাগবে?

ই পাসপোর্টের আবেদনকারীর বয়স যদি ১৮ বা তার বেশি হয় এবং তার জাতীয় পরিচয়পত্র থাকে তাহলে নিচের তালিকা অনুযায়ী ই পাসপোর্ট করতে তার কাগজ পত্র লাগবে।

  • Application Summary
  • Application Form বা আবেদন পত্র
  • NID বা জাতীয় পরিচয়পত্র
  • পাসপোর্ট ফি জমা দেওয়ার চালান কপি
  • আবেদনের ধরন অনুযায়ী অনান্য ডকুমেন্টস যেমন, SSC Certificate
  • নাগরিকত্ব সনদপত্র
See also  ই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম, বিভিন্ন পাসপোর্ট স্ট্যাটাস এর অর্থ ও ব্যাখ্যা , BD Passport Status Details

ই পাসপোর্টের আবেদনের সময় এই সকল কাগজ পত্র জমা দেওয়া লাগে।

২০ বছরের কম যারা জাতীয় পরিচয়পত্র পায়নি

যাদের বয়স ২০ বছর থেকে কম এবং যারা এখনো জাতীয় পরিচয়পত্র বা ভোটার আইডি কার্ড পায়নি তারা পাসপোর্টের আবেদন করার সময় আবেদন পত্রের সাথে যে সকল কাগজ পত্র জমা দিবে তার তালিকা নিচে দেওয়া হলো।

  • Application Summary
  • Application Form
  • অনলাইন জন্ম নিবন্ধন বা BRC কপি
  • পিতা মাতার জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি
  • ব্যাংক ড্রাফটের চালান কপি
  • পেশা যদি ছাত্র হয় তাহলে student id এবং সর্বশেষ যে কোন একটি সার্টিফিকেট।
  • নাগরিক সনদপত্র

সরকারি চাকরিজীবীদের ই পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে?

সাধারণ জনগণের যে সকল কাগজ পত্র ই পাসপোর্টের জন্য লাগে। সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারিদের তার থেকে মাত্র ২ টি ডকুমেন্টস বেশি লাগে৷

  • NOC
  • GO

NOC মানে কি?

Noc মানে হলো No Objection Certificate বাংলায় যাকে আমরা ছাড়পত্র বলে থাকি। সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারিদের তাদের উপরস্থ কর্মকর্তার নিকট হতে noc নিয়ে তা পাসপোর্টের আবেদনের সাথে জমা দিতে হয়।

GO মানে কি?

GO মানে হলো Government Order যে সকল সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারিরা পাসপোর্টের জন্য আবেদন করবেন তারা মূলত অফিসিয়াল পাসপোর্টের ক্ষেত্রে GO পাসপোর্ট আবেদনের সাথে জমা দিয়ে থাকে।

শিশুদের ই পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে?

  • 3R Size ছবি Lab Print, Gray Background
  • শিশুর জন্ম নিবন্ধন
  • পিতা মাতার জাতীয় পরিচয়পত্র
  • Application Summary
  • Application Form
  • পাসপোর্ট ফি জমা দেওয়ার চালান কপি
  •  ইউটিলিটি বিল
  • নাগরিকত্ব সনদপত্র

শিশুদের পাসপোর্টের আবেদনের সময় এই সমস্ত কাগজপত্র গুলো আবেদনের সাথে জমা দিতে হয় আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে।

পাসপোর্ট করতে কি কি জমা দিতে হয়?

ই পাসপোর্টের ধরণ ও আবেদনকারীর বয়স অনুযায়ী ই পাসপোর্টের জন্য নানান রকম ডকুমেন্টস জমা দেয়া লাগে নিচে তার বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

See also  পাসপোর্ট সংশোধন করার নিয়ম কি, Passport Correction In Bangladesh

জন্ম নিবন্ধন বা জাতীয় পরিচয়পত্র

ই পাসপোর্টের আবেদনের সময় আপনারা বয়স যদি ১৮ বছরের বেশি হয় এবং যদি আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র থাকে তাহলে আপনাকে জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি জমা দিতে হবে।

আর যদি আপনার বয়স ১৮ এর কম হয় এবং আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকে তাহলে আপনাকে আপনার অনলাইনে করা জন্ম নিবন্ধন সনদের ফটোকপি জমা দিতে হবে।

প্রি পুলিশ ভেরিফিকেশন

যারা আর্জেন্ট ভাবে পাসপোর্ট করতে দেয় তারা আবেদনের প্রি পুলিশ ভেরিফিকেশন জমা দিয়ে থাকে। অতএব, আপনার যদি জরুরি ভাবে পাসপোর্ট করাতে হয় তাহলে আপনাকে ই পাসপোর্টের আবেদনের সাথে পুলিশ ভেরিফিকেশনের কপিও জমা দিতে হবে।

পাসপোর্ট ফি জমার চালান কপি

ই পাসপোর্টের জন্য পাসপোর্টের ধরন অনুযায়ী পাসপোর্ট ফি জমা দিতে হয়। পাসপোর্ট ফি ২ পদ্বতিতে জমা নেয় অনলাইন ও অফলাইনে। আপনি যে ভাবে পাসপোর্ট ফি দেন না কেন আপনাকে একটি চালান কপি দেওয়া হবে। উক্ত চালানের কপিটি আবেদনের সময় আবেদন পত্রের সাথে আপনাকে জমা দিতে হবে।

পাসপোর্টের আবেদনের সামারি কপি

E passport Application Summary কপি হলো যে পাসপোর্টের আবেদন করেছেন তার সারসংক্ষেপ। পাসপোর্ট সামারি কপিতে Online Registration বা OID সহ একটি নম্বর থাকে যার সাহায্য নিয়ে পাসপোর্টের সর্বশেষ আপডেট দেখা যায়। পাসপোর্টের আবেদনের সময় সকলকে Application Summary জমা দিতে হয়।

Sarker Tahsin

Hello friends, my name is Imon Miah, I am the Writer and Founder of this blog Infolinebd and share all the information related to Blogging, SEO, Internet, Sports news, Review, Make Money Online, News and Technology through this website. Know for infolinebd about

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page