পাসপোর্ট সংশোধন করার নিয়ম কি, Passport Correction In Bangladesh

পাসপোর্ট সংশোধন করার নিয়ম কি, Passport Correction In Bangladesh

পাসপোর্ট সংশোধন করার নিয়ম কি, Passport Correction In Bangladesh
পাসপোর্ট সংশোধন করার নিয়ম কি, Passport Correction In Bangladesh

পাসপোর্ট সংশোধনের মানে হলে আপনাকে পাসপোর্ট রিনিউ এর জন্য আবেদন করতে হবে। কারণ পাসপোর্ট সংশোধনের পর আপনার হাতে যে পাসপোর্ট দেওয়া হবে সে পাসপোর্ট এ নতুন করে expired date দেওয়া হবে।

তাই আপনি mrp passport বা e-passport যেটি সংশোধন করতে চান কেন আপনাকে সবার আগে অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

পাসপোর্ট সংশোধনের করার নিয়ম

পাসপোর্ট সংশোধনের জন্য প্রথমে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের সঠিক তথ্য থাকা লাগবে। তারপর পাসপোর্ট সংশোধনের জন্য নিচের ধাপ সমূহ অনুসরণ করুন।

  • সঠিক তথ্যের প্রমান সাপেক্ষে ডকুমেন্টস সংগ্রহ করা।
  • NID কপি, জন্ম নিবন্ধন, শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ, বিদেশ থেকে আবেদন করলে জব আইডি কার্ড, Permanent Resident Card/ Student ID Card/ Driving License কপি সংগ্রহ করুন।
  • অনলাইনে আবেদন করুন।
  •  এ চালান বা ই চালানের মাধ্যমে পাসপোর্ট ফি পরিশোধ করা।
  •  পাসপোর্ট সংশোধনের জন্য অঙ্গীকার নামা সংগ্রহ করা এবং তা সঠিকভাবে পূরন করে পাসপোর্টের আবেদনের সাথে জমা করা।
  • সকল সাপোর্টিং ডকুমেন্টস সহ আবেদন পত্র জামদান।

পাসপোর্ট সংশোধন করতে কি কি লাগে?

পাসপোর্ট সংশোধন একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ হওয়ায় এটি গুরুত্বের সাথে করতে হয়। কারণ একবার অবহেলার কারণে ভুল হওয়ায় পূনরায় পাসপোর্ট সংশোধন করতে তাই এই কাজটি গুরুত্বসহকারে করতে হয়। নিচে পাসপোর্ট সংশোধন করতে যা যা প্রয়োজন তার তালিকা নিচে দেওয়া হলো।

  • জাতীয় পরিচয়পত্র এবং শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্র।
  • যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র নেই তাদের জন্য জন্ম নিবন্ধনের অনলাইন কপি।
  • আবেদন যদি দেশের বাহির থেকে করা হয় তাহলে নিচের ডকুমেন্টস গুলো জমা দিতে হবে Permanent Resident Card/ Student ID Card/ Driving License/ Job Id card।
  • লিখিত আবেদন ও অঙ্গীকারনামা।
  • পুরাতন পাসপোর্ট এবং পাসপোর্ট কপি।
See also  ই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম, বিভিন্ন পাসপোর্ট স্ট্যাটাস এর অর্থ ও ব্যাখ্যা , BD Passport Status Details

পাসপোর্ট সংশোধনের আবেদন প্রয়োজনে সিআইডি দ্বারাও তদন্ত করতে হতে পারে।

কিভাবে পাসপোর্ট সংশোধন করব?

পাসপোর্ট সংশোধন করার জন্য অবশ্যই আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রে সঠিক তথ্য থাকতে হবে। তারপর সঠিক তথ্য দিয়ে অনলাইনে ই পাসপোর্টের জন্য আবেদন করবেন। ফি পরিশোধ করার পর, আবেদনপত্র, তথ্য সংশোধনের হলফনামা ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পাসপোর্ট অফিসে জমা দিন।

পাসপোর্টে নাম সংশোধনে উপায়

পাসপোর্টে নিজের নাম বা নিজের পিতা মাতার নাম সংশোধন করা যায়। তবে এর জন্য আপনাকে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি বা শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্র জমা দিতে হবে। তবে যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র নেই তাদের জন্ম নিবন্ধনের অনলাইন কপি জমা দিতে হবে।

পাসপোর্টের জন্ম তারিখ সংশোধনের নিয়ম

পাসপোর্টে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সংশোধন হলো জন্ম তারিখ সংশোধন। অনেক প্রবাশী পাসপোর্টের বয়স সংক্রান্ত অনেক সমস্যায় পরে থাকেন। যার ফলে তারা তাদের পাসপোর্টের বয়স সংশোধন করতে চান। তাদের সুবিধার জন্য বলা হচ্ছে পাসপোর্টের বয়স সংশোধনের জন্য আপনাকে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র এবং এসএসসি, এইচএসসি, জেএসসি ও প্রয়োজনে পিএসসি সনদপত্র জমা দিতে হতে পারে।

তবে যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র নেই তাদের জন্য অনলাইনে করা জন্ম নিবন্ধন কপি লাগবে পাসপোর্টের জন্মতারিখ সংশোধনের জন্য।

পাসপোর্ট সংশোধন করতে কত টাকা লাগে?

পাসপোর্ট সংশোধন আর নতুন পাসপোর্ট করা একি কাজ বিধায়। দুটির বেলায় একি ফি আদায় করে থাকে পাসপোর্ট অফিস। পাসপোর্ট সংশোধনে ধরন ডেলিভারি ইত্যাদি অনুযায়ী পাসপোর্ট সংশোধন ফি ৪০২৫ টাকা থেকে ১০৩৫০ টাকা লাগতে পারে।

ই পাসপোর্ট কি সংশোধন করা যায়?

হ্যাঁ ই পাসপোর্ট অনলাইনের মাধ্যমে সংশোধন করা যায়।

Sarker Tahsin

Hello friends, my name is Imon Miah, I am the Writer and Founder of this blog Infolinebd and share all the information related to Blogging, SEO, Internet, Sports news, Review, Make Money Online, News and Technology through this website. Know for infolinebd about

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page