ভারতের যেসব স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ ২০২৩

ভারতের যেসব স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ ২০২৩

ভারতের যেসব স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ ২০২৩
ভারতের যেসব স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ ২০২৩

২০২৩ ক্রিকেট বিশ্বকাপ কোথায় হবে? 2023 ক্রিকেট বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে ভারতের স্টেডিয়ামে। ওয়ানডে বিশ্বকাপ ২০২৩ সময়সূচি অনুযায়ী আগামী ৫ অক্টোবর ওডিআই ১৩ তম আসরের প্রথম ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

ভারত এই প্রথমবার একা আয়োজন করবে আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৩। ইতিমধ্যে দেশটির সবকয়টি স্টেডিয়ামের কাজ শেষ হয়েছে। ভারতের ১৩ টি ভিন্ন সব স্টেডিয়ামে সবগুলো ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা যায়। ১৩টা মাঠে খেলা হওয়ায় ভক্তরা জানতে চায় কোন কোন স্টেডিয়ামে হবে ওডিআই বিশ্বকাপ ২০২৩।

ওয়ানডে বিশ্বকাপ স্টেডিয়াম তালিকা ২০২৩

নিচে আইসিসির ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৩ এর আয়োজিত স্টেডিয়াম লিস্ট দেওয়া হলো।

 

ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম

ওয়াংখেড়ে ভারতের মুম্বাই শহরে অবস্থিত একটি ক্রিকেট স্টেডিয়াম।এই স্টেডিয়ামটি ১৯৭৮ সালে প্রতিষ্ঠিত করা হয়। এখানে একসাথে ৪৫,০০০ হাজার দর্শক খেলা দেখতে পারবে।এখানে পূর্বে ২০১১ সালে ক্রিকেট বিশ্বকাপ আয়োজন করা হয়। রবি শাস্থীর এক ওভারে ছয়টা ছয় খাওয়ার কথা তো সকলের মনে আছে আবার দ্বিতীয় বার ওয়ানডে বিশ্বকাপ জয়ী হয় ইন্ডিয়া এই স্টেডিয়ামে। ২০২৩ সালে ক্রিকেট বিশ্বকাপের জন্য সিলেক্ট করা হয়েছে ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম।

ইডেন গার্ডেন

ইন্ডিয়ার প্রাচীন তম ক্রিকেট স্টেডিয়ামের নাম হলো ইডেন গার্ডেন। এটা কলকাতায় অবস্থিত। ইডেন গার্ডেন স্টেডিয়ামটি ১৮৬৪ সালে নির্মান করা হয়। ২০ হেক্টর জমিতে এর অবস্থান। বর্তমানে, ৮০ হাজার দর্শক একসঙ্গে খেলা দেখতে পারে এই মাঠে। কলকাতা নাইট রাইডারসের হোম গ্রাউন্ড হিসাবেও এটা ব্যাবহার করা হয়। ২০২৩ ওডিআই বিশ্বকাপের জন্য এখন প্রস্তুত করা হচ্ছে।

See also  এশিয়া কাপ ২০২৩ যেসব চ্যানেলে দেখা যাবে?

ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়াম

ফিরোজ শাহ কোটলা নামটা এখন অতীত যার বর্তমান নাম হলো অরুন জেটলি স্টেডিয়াম। ১৯৮৩ সাল থেকে দিল্লির বাহাদুর শাহ জাফর মার্গে অবস্থিত ক্রিকেট স্টেডিয়াম। কলকাতার ইডেন গার্ডেন পর এটা ভারতের দ্বিতীয় প্রাচীন তম স্টেডিয়াম, যেটা আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার মযার্দা পায়। এই মাঠে সবচেয়ে বেশি বার টেস্ট জিতেছে ভারত (১০) বার। একসঙ্গে প্রায় ৪২ হাজার মানুষ খেলা উপভোগ করতে পারবে।

এম. চিন্নাস্বামী স্টেডিয়াম

ভারতের অন্যতম আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম এম. চিন্নাস্বামী যা কর্ণাটকের বেঙ্গালুরু এলাকায় অবস্থিত। ১৯৬৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় স্টেডিয়ামটি ৪০ হাজার মানুষ খেলা দেখতে পারে একসঙ্গে মাঠে বসে। এর আগে কয়েকবার আইপিএল সহ আন্তর্জাতিক ম্যাচও আয়োজন করা হয়েছে এই স্টেডিয়ামে। বর্তমানে ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপের জন্য মাঠ প্রস্তুত হচ্ছে।

এম এ চিদাম্বরম স্টেডিয়াম

চেন্নাইয়ে অবস্থিত এম এ চিদাম্বরম স্টেডিয়াম। ১৯১৬ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে স্টেডিয়ামটি। প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট ও আইপিএলের দল চেন্নাই সুপার কিংস নিজের হোম গ্রাউন্ড হিসাবে এটা ব্যবহার করে থাকে। এর আগে তিনটি ক্রিকেট বিশ্বকাপের ৭ টা ম্যাচ এই স্টেডিয়ামে আয়োজন করা হয়। মাঠের ধারণক্ষমতা ৫০ হাজার।

সরদার প্যাটেল স্টেডিয়াম

সরদার প্যাটেল স্টেডিয়াম এর নতুন নাম রাখা হয়েছে নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়াম যেখানে ২০২৩ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাওের ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। যেটি আহমেদাবাদের মতেরাতে অবস্থিত। এই স্টেডিয়ামে রাতে ও দিন খেলার বিশেষ সুবিধা পাওয়া যায়। ঠিক সেই কারণে ভারতের এই স্টেডিয়ামে ওয়ানডে বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচ আয়োজন করার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

পিসিএ স্টেডিয়াম

পাঞ্জাব ক্রিকেট সংস্থা আইএস বিন্দ্রা স্টেডিয়াম ঝাঁকে সংক্ষেপে বলা হয় PCA স্টেডিয়াম। ভারতের পাঞ্জাবের মোহালিতে অবস্থিত একটি ক্রিকেট মাঠ যার ধারণক্ষমতা প্রায় ২৭ হাজার। তিন বছর সময় ধরে এটি তৈরি করেছে।

রাজীব গান্ধী স্টেডিয়াম

রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম হায়দরাবাদে অবস্থিত। আইপিএলের দল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ এই মাঠ নিজের হোম গ্রাউন্ড হিসেবে ব্যবহার করে থাকে। ২০০৩ সালে এর যাত্রা শুরু হয় যেখানে ৫৫ হাজার মানুষ খেলা দেখতে পারবে একসঙ্গে বসে। বর্তমানে ওডিআই বিশ্বকাপকে সামনে রেখে এটির কাজ শুরু করেছে কতৃপক্ষ।

See also  ২০২৩ ক্রিকেট বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব

ভিসিএ স্টেডিয়াম

ভারতের আরেকটা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম হলো ভিসিএ। এর আরেক নাম বিদর্ভ ক্রিকেট সংস্থা স্টেডিয়াম। এখানে ৪৫ হাজার মানুষ খেলা দেখতে পারবে একসঙ্গে ২০০৮ সাল থেকে এর যাত্রা হয় নাগপুরে। যদিও ভাড়ায় চলে মাঠ তবে এখন তা নিজেদের কাছেই রয়েছে।

এম সি এ স্টেডিয়াম

মহারাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন ঝাকে সংক্ষেপ বলে এম সি এ স্টেডিয়াম। ভারতের পুণে শহর থেকে ২৮ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত এই ক্রিকেট গ্রাউন্ড। প্রায় ৩৮ হাজার ধারণক্ষমতা, মাঠ হওয়ার পর থেকে মাত্র একবার ওয়ানডে ম্যাচ আয়োজন করা হয় এখানে। বর্তমানে আইসিসির ক্রিকেট বিশ্বকাপের কিছু ম্যাচ আয়োজন করার জন্য প্রস্তাব করা হয়েছে।

গ্রীন পার্ক স্টেডিয়াম

ভারতের কানপুরে অবস্থিত আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম গ্রীন পার্ক। ১৯৪৫ সালে ক্রিকেট স্টেডিয়ামটা তৈরি করেছে যার ধারণক্ষমতা ৩২ হাজার।

এসসিএস স্টেডিয়াম ও গান্ধী স্টেডিয়াম

ভারতের ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৩ স্টেডিয়াম

২০২৩ সালে আইসিসির ক্রিকেট বিশ্বকাপের জন্য ভারতের ১৩টি স্টেডিয়াম যোগ্য হিসাবে গণ্য হয়েছে।

নং  ভারতের স্টেডিয়াম  শহর
ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম  মুম্বাই
ইডেন গার্ডেন  কলকাতা
ফিরোজ শা কোটলা  দিল্লি
এম চিন্নাস্বামী স্টেডিয়াম  বেঙ্গলো
এম এ চিদম্বরম স্টেডিয়াম  চেন্নাই
সরদার প্যাটেল স্টেডিয়াম  আহমেদাবাদ
পিসিএ স্টেডিয়াম  মাহালী
রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম  হায়দরাবাদ
ভিসিএ স্টেডিয়াম  নাগপুর
১০ এম সি এ স্টেডিয়াম  পুনে
১১ গ্রীন পার্ক  কানপুর
১২ এসসিএ স্টেডিয়াম  রাজকোট
১৩  গান্ধী স্টেডিয়াম  গৌহাটি  (আসাম)

 

Sarker Tahsin

Hello friends, my name is Imon Miah, I am the Writer and Founder of this blog Infolinebd and share all the information related to Blogging, SEO, Internet, Sports news, Review, Make Money Online, News and Technology through this website. Know for infolinebd about

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page